আবার ১০ লাখ গাড়ি সরিয়ে নিচ্ছে মার্সিডিজ

ব্রেকজনিত সমস্যার কারণে পুরোনো মডেলের প্রায় ১০ লাখ গাড়ি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জার্মানির শীর্ষস্থানীয় গাড়ি কোম্পানি মার্সিডিজ বেঞ্জ। ব্রেকিং সিস্টেমের ত্রুটির কারণে ক্রেতাদের নানা ধরনের ঝুঁকির কথা বিবেচনা করেই গাড়ি সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। খবর বিবিসির

এক বিবৃতিতে মার্সিডিজ বেঞ্জ জানিয়েছে, ওসব গাড়ির ব্রেক বুস্টারে কিছু সমস্যা থাকায় দুর্ঘটনার ঝুঁকি আছে। ক্রেতাদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে যেসব গাড়িতে সমস্যা আছে, সেগুলো সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে গাড়ির মালিকদের সঙ্গে কথা বলা শুরু করেছে বলে জানিয়েছে তারা।

সম্ভাব্য ক্ষতিগ্রস্ত গাড়িগুলোর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। এই নিরীক্ষার ফলাফলের দিকে তাকিয়ে আছে এই গাড়ি কোম্পানি। ফলাফল পাওয়ার পর এতে প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ যোগ করা হবে। এই পরীক্ষা শেষ না হওয়া পর্যন্ত মার্সিডিজের সংশ্লিষ্ট মডেলের গাড়ি না চালানোর জন্য ক্রেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে তারা।

মার্সিডিজ বিশ্বব্যাপী মোট ৯ লাখ ৯৩ হাজার ক্রেতার কাছ থেকে গাড়ি ফিরিয়ে নিচ্ছে, যার মধ্যে প্রায় ৭০ হাজার গাড়ি জার্মানির। এই গাড়িগুলোর মধ্যে আছে ২০০৪ সাল থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে নির্মিত এসইউভি সিরিজের এমএল, জিএল ও আর-ক্লাস লাক্সারি মিনিভ্যান মডেলের গাড়ি।

এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে ই-কল ইমার্জেন্সি সিস্টেমে ত্রুটি থাকায় ১০ লাখ গাড়ি প্রত্যাহার করে নেয় মার্সিডিজ বেঞ্জ। ই–কল ইমার্জেন্সি সিস্টেম মূলত দুর্ঘটনাকবলিত কোনো গাড়ির অবস্থান চিহ্নিত করে থাকে। এ ছাড়া জরুরি সেবার সংকেতও দেয় তা। ই-কল ফিচারে সমস্যা থাকার কারণে ভুল অবস্থান ও সংকেত দিত এই গাড়ি, যার কারণে ত্রুটিপূর্ণ সেই গাড়িগুলো সরিয়ে নেয় মার্সিডিজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.